৫ই বৈশাখ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১৮ই এপ্রিল ২০২১ ইং| ৫ই রমযান ১৪৪২ হিজরী

এবার সুনামগঞ্জে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে

0

সুনামগঞ্জবাসীর জীবনমান ও অর্থনৈতিক উন্নয়নের মহাযজ্ঞ চলছে ॥ পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান এমপি

এবার সুনামগঞ্জে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে

সিলেটের উন্নয়নে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান একের পর এক চমক দেখাচ্ছেন। পরিকল্পনামন্ত্রীর প্রচেষ্টায় হাওরাঞ্চল সুনামগঞ্জে মেডিকেল কলেজ, সুনামগঞ্জে টেক্সটাইল ইনস্টিটিউটের পর এবার সুনামগঞ্জ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় প্রকল্প মন্ত্রিসভার বৈঠকে অনুমোদিত হয়েছে। এমন খুশির সংবাদে আনন্দে ভাসছে হাওরবাসী।
গতকাল সোমবার সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার বৈঠকে সুনামগঞ্জ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় অনুমোদন লাভ করে। পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নানের অক্লান্ত প্রচেষ্টায় প্রকল্পটি অনুমোদন পাওয়ায় সুনামগঞ্জের বিভিন্ন স্থানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নানকে শুভেচ্ছা জানিয়ে আনন্দ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।
গতকাল সোমবার রাতে সিলেটের ডাককে পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান বলেন, শুধু সুনামগঞ্জ নয় বৃহত্তর সিলেটের উন্নয়নে শেখ হাসিনার সরকার কাজ করছে। ইতোমধ্যে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের উন্নয়নে তাঁর প্রচেষ্টায় ১২শ’২৮ কোটি টাকা দেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, হাওরাঞ্চল সুনামগঞ্জবাসীর দুর্দিন শেষ। এই এলাকার মানুষের জীবনমান ও অর্থনৈতিক উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মাধ্যমে তিনি উন্নয়নের মহাযজ্ঞ চালাচ্ছেন। সুনামগঞ্জে মেডিকেল কলেজ, বিশ^বিদ্যালয়ের পর এখন রেল যোগাযোগের জন্য কাজ করছেন মন্ত্রী।
২০১৯ সালের এপ্রিলে সুনামগঞ্জে সরকারিভাবে ‘বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ’ স্থাপন প্রকল্প যাত্রা শুরু করে। ৩৫ একর জায়গার ওপর সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার মদনপুরে কলেজ নির্মাণের কাজ দ্রুতগতিতে এগিয়ে চলছে। পরিকল্পনামন্ত্রী জানান, বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ সুনামগঞ্জ এর কাজ পুরোদমে এগিয়ে চলছে। এখন সুনামগঞ্জ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজ শুরু হবে। সুনামগঞ্জে রেল যোগাযোগ ব্যবস্থার জন্য আনুসাঙ্গিক সকল কাজ তিনি এগিয়ে এনেছেন। আগামীতে এই প্রকল্পও অনুমোদন পাবে।
মন্ত্রী বলেন, আমি সুনামগঞ্জবাসীকে দেওয়া কথা রাখতে পেরেছি। প্রধানমন্ত্রী বিশেষায়িত বিশ্ববিদ্যালয়টির অনুমোদন দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী হাওরবাসীর প্রতি অত্যন্ত দরদী। আমাদের হাওর এলাকার কোনো প্রকল্প বাদ দেন না। আমাদের উচিত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে শক্তি, সমর্থন, সাহস জোগানো।
দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থেকে আমাদের নিজস্ব সংবাদদাতা জানান, পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান এমপির প্রচেষ্টায় সুনামগঞ্জ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় অনুমোদন পাওয়ায় আনন্দে ভাসছে পুরো জেলা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নানকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়ে আনন্দ মিছিল করেছে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ। গতকাল সোমবার বিকাল ৪টায় শান্তিগঞ্জবাজারস্থ দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের অস্থায়ী কার্যালয় থেকে শুরু হয়ে একটি মিছিল উপজেলার বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। আনন্দ মিছিলে উপস্থিত ছিলেন দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি হাজী তহুর আলী, পরিকল্পনামন্ত্রীর একান্ত রাজনৈতিক সহকারী হাসনাত হোসেন, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান প্রভাষক নূর হোসেন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান দোলন রানী তালুকদার, জয়কলস ইউপি চেয়ারম্যান মাসুদ মিয়া, পূর্ব পাগলা ইউপি চেয়ারম্যান আক্তার হোসেন, পশ্চিম পাগলা ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল হক, শিমুলবাঁক ইউপি চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান জিতু, পশ্চিম বীরগাঁও ইউপি চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম, যুক্তরাষ্ট্র মিশিগান স্টেট আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি হাজী আপ্তাব মিয়া, উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা আসাদুর রহমান আসাদ, ফয়জুল হক, জেলা কৃষকলীগের সদস্য মাসুক মিয়া, উপজেলা কৃষকলীগের সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক আব্দুল গনি ভান্ডারী, যুগ্ম আহবায়ক মাজহারুল ইসলাম মইনুল, উপজেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি রিপন তালুকদার, যুবলীগ নেতা নুর আলম, সাকির আহমদ, মাশুক পারভেজ, জয়ন্ত তালুকদার পুল্টন, মাহবুব আলম রুবেল, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা শাহিন আলম শাহিন, মনসুর আলম সুজন, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক স¤পাদক কামরুল ইসলাম শিপন, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রয়েল আহমদ, সাধারণ স¤পাদক ইমরান হোসেন তালুকদার, সহ-সভাপতি ইজহারুজ্জামান, যুগ্ম সাধারণ স¤পাদক জাহিদুল ইসলাম, সাংগঠনিক স¤পাদক সমীরণ দাস সুবীর, ছাত্রলীগ নেতা নাইম আহমদ সান প্রমুখ।

Leave A Reply

ten − nine =

shares